রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন

ভৈরবে পাদুকা মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ॥ ৮টি ইউনিটের ৫ ঘন্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে ॥ তদন্ত কমিটি গঠন

ভৈরবে পাদুকা মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ॥ ৮টি ইউনিটের ৫ ঘন্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে ॥ তদন্ত কমিটি গঠন

এম.এ হালিম, ভৈরব প্রতিনিধি ॥ কিশোরগঞ্জের ভৈরবে হাজি ফুল মিয়া পাদুকা মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিটের । ৫ ঘন্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে । জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামিম আলমসহ স্থানীয় প্রশাসন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন । এ সময় সাথে ছিলেন ভৈরব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাদিকুর রহমান সবুজ, উপজেলা সহকারি কমিশনার ( ভূমি ) মোঃ জুলহাস হোসেন সৌরভ ।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামিম আলম জানান , ৫ ঘন্টার চেষ্টায় ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন । আগুন লাগার প্রকৃত কারন উদঘাটন করতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছ। কমিটির রিপোর্ট অনুযায় পরবর্তী পদক্ষেপ নিবেন । এছাড়া ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরী করে আর্থিক সহায়তার আশ্বাস দেন ।  রোববার বিকাল ৩টার দিকে হাজি ফুল মিয়া মার্কেটের ৩ তলার একটি গোডাউনে আগুন লাগে। পওে তা মূহূর্তের মধ্যে পুরো ৩ তলার বিভিন্ন দোকানে ছড়িয়ে পড়ে ।এ সময় খবর পেয়ে ভৈরববাজার ও নদী ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নেভাতে চেষ্টা করে । পরে কুলিয়ারচর,বাজিতপুর,বেলাব ও আশুগঞ্জসহ বিভিন্ন উপজেলার ৮টি ফায়ার সার্ভিস আগুন নেভাতে কাজ করে ।
পাদুকা ব্যবসায়ীদের দাবী অগ্নিকান্ডে মার্কেটের ৩ তলার প্রায় টি গোডাউনের মজুতকৃত কয়েক কোটি টাকার মালামাল ও পাদুকা আগুনে পুড়ে গেছে । মার্কেটের ব্যবসায়ী ও মালিকরা জানায় বিকাল ৩ টার দিকে মার্কেটের ৩ তলায় হঠাৎ ধোয়াঁর কুন্ডলি দেখতে পায় । তাৎক্ষণিক ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে ভৈরব বাজার ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নেভাতে কাজ শুরু করে । কিন্ত মূহুর্তের মধ্যে আগুনর কুন্ডলি বাড়তে থাকলে নদী ফায়ার সার্ভিসসহ কুলিয়ারচর ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণে যোগ দেয় । তবে কিভাবে এবং কার গোডাউনে আগনের সূত্রপাত তা কেউ বলতে পারছেনা । ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ও আগুন লাগার প্রকৃত কারন জানাতে পারেনি ।ব্যবসায়ীরা আরো জানান, হাজি ফুল মিয়া মার্কেটের ১ম ও ২য় তলা পাইকারি পাদুকা বিক্রির প্রায় ২ শতাধিক দোকান রয়েছে এবং ৩য় তলায় পাদুকার শতাধিক গোডাউন রয়েছে । এ ঘটনায় ভৈরব-ময়মনসিংহ আঞ্চলিক মহাসড়কে যানচলাচল সাময়িক বন্ধ হয়ে যায় । পরে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলে যান চলাচল শুরু হয় ।তবে এ পর্যন্ত একাধিকবার এ মার্কেটে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে ।
এ বিষয়ে ভৈরব ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন আফিসার আজিজুর রহমান রাজন জানান এখনো আগুন লাগার প্রকৃত কারন জানা যায়নি । আগুনে ৮টি দোকান ও মালামাল পুড়ে গেছে ।ব্যবসায়ীদের দাবী ২ কোটি ৭৭ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে ।তবে তদন্ত করে প্রকৃত কারন ও ক্ষয়-ক্ষতির পরিমান জানা যাবে ।

 

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana