বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০২:২৬ অপরাহ্ন

ভৈরবে জামালপুর টেকনিক্যাল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার ও সভাপতিকে পদ থেকে সরানোর দাবিতে ছাত্রছাত্রীদের বিক্ষোভ

ভৈরবে জামালপুর টেকনিক্যাল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার ও সভাপতিকে পদ থেকে সরানোর দাবিতে ছাত্রছাত্রীদের বিক্ষোভ

এম.এ হালিম:

ভৈরবের জামালপুর টেকনিক্যাল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে স্ব-পদে বহাল এবং ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এডভোকেট মোস্তফা কামালকে কমিটির সভাপতির পদ থেকে প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্কুলের শিক্ষার্থীরা। আজ শনিবার সকালে ক্লাস বর্জন করে স্কুল মাঠে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নেন কয়েকশত ছাত্রছাত্রী।
জানা যায়, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতির রোষানলের শিকার হয়ে গত কয়েক বছর আগে সহকারী শিক্ষক মুনিরা সুলতানার স্বামী ও স্কুলের প্রধান শিক্ষক বহিষ্কার হয়। এরই জের ধরে গত বছর মুনিরা সুলতানাকে বহিষ্কার করা হয়। শিক্ষার্থীদের দাবি মুনিরা ম্যাডাম একজন ভালো মানের শিক্ষক। শুধু সভাপতির আক্রোশের রোষানলের কারনে বহিষ্কার করা হয়েছে। মুনিরা ম্যাডামের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে তাকে স্ব সম্মানে তার পদে বহাল রেখে এবং বর্তমান সভাপতিকে কমিটি থেকে প্রত্যাহারের মাধ্যমে স্কুলের স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনার দাবি জানান। এসময় শিক্ষিকা বহিষ্কারের বিষয়ে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের একটি অডিট টিম তদন্তে আসেন। অডিট টিম স্কুল ত্যাগের সময় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা তাদের গাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখেন । খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করেন।
বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানান, সভাপতির রোষানলের কারনে শিক্ষিকা মনিরা সুলতানাকে বিনা কারনে বহিষ্কা করেছে সভাপতি এডঃ মোস্তফা কামাল । তাই তারা শিক্ষিকার বহিষকারাদেশ প্রত্যাহার করে স্ব-পদে বহাল এবং সভাপতির পদ থেকে এডঃ মোস্তফা কামা কে প্রত্যাহারের দাবি জানান ।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগি শিক্ষিকা মনিরা সুলতানা বলেন,তার স্বামীর সাথে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতির বিরেধের কারনে তার স্বামী প্রধান শিক্ষককে চাকরী থেকে বরখাস্ত করে তাকে ও বিনা কারনে অন্যায়ভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে । তিনি এর সুষ্ঠু বিচার চান।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মাহমুদা খাতুন জানান ,বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ নানা কারনে শিক্ষিকা মনিরা সুলতানাকে বহিষ্কার করেছে। এ ঘঁনায় শিক্ষা মনত্রণালয় থেকে একটি টিম এসেছে তদন্ত করতে । এছাড়া মনিরা সুলতানা ও জানতে এসেছে তার বেতন ভাতা বন্ধ কেন?

এ বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মোস্তাফা কামাল জানান শিক্ষার্থীরা অবুঝ সব কিছু বোঝেনা । তদন্ত টিম এসেছে তদন্তের পর সব কিছু ঠিক হয়ে যাবে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana