সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৩৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে ৩১ তম আন্তর্জাতিক ২৪ তম প্রতিবন্ধী দিবস উদযাপিত ভৈরবে ফসল রক্ষা বাধ ও ফসলি জমি কেটে ইট ভাটায় ব্যবহার হচ্ছে মাটি॥ হুমকির মুখে পরিবেশ ও জীব বৈচিত্র কিশোরগঞ্জ রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট সদস্যদের না জানিয়ে প্রহসনের   নির্বাচনের পাঁয়তারার অভিযোগ বিএনপি-জামায়াত মিথ্যাচার করছে তাদের ফাদেঁ পা দিবেন না: ভৈরবে বিসিবি সভাপতি পাপন তামিম ইকবালের পরিবর্তে ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে অধিনায়ক লিটন দাস কুলিয়ারচরে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের শুভ উদ্বোধন করেন সাংসদ নাজমুল হাসান পাপন অবহেলার দায়ে ১৩৪ জনের বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা বিজয় টিভি ভৈরব প্রতিনিধি হলেন সাংবাদিক সোহানুর রহমান সোহান বিশ্বকাপ আয়োজনে ৪০০-৫০০ শ্রমিকের মৃত্যুর কথা স্বীকার কাতারের অনেক সাংবাদিক সঠিকভাবে না জেনে লেখা প্রকাশ করেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কিশোরগঞ্জে শিশু গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার

কিশোরগঞ্জে শিশু গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার:

কিশোরগঞ্জে সংঘটিত অভিনব কায়দায় শিশু গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি আতাউর রহমান আতিক (৪৫) কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২ কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল।
গ্রেফতার আতাউর রহমান আতিক কটিয়াদী উপজেলার বাগবের এলাকার মৃত সুন্দর আলীর ছেলে।
সোমবার, ৪ এপ্রিল রাত সাড়ে ১২টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২ কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়কে (উপ-পরিচালক) মেজর মো. শাহরিয়ার মাহমুদ খান।
র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২ কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, চলতি বছরের ৩১ মার্চ আতিক(৪৫) ভিকটিম (১২) এবং ভিকটিমের বড় ভাইকে দাওয়াত খাওয়ার জন্য কিশোরগঞ্জ সদরে আনিছের বাসায় নিয়ে আসে। আনিছ ওরফে আনাছ ও আতিকের পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ভিকটিমের সাথে অসৎ কার্য সম্পাদনের উদ্দেশ্যে প্রস্তুতি নিয়ে রাখে। আতিক বাচ্চাদেরকে নিয়ে আনিছের বাসায় গেলে আনিছ বাচ্চাদেরকে চেতনা নাশক ঔষধ মিশ্রিত দই ও মিষ্ট খেতে দেয়। সেই মিষ্টি ও দই খাওয়ার পরপরই বাচ্চা দুইজন অজ্ঞান হয়ে যায়। পরবর্তীতে ভিকটিমের জ্ঞান ফিরলে সে দেখতে পায় আতিক তাকে ধর্ষণ করছে। ভিকটিম উক্ত কাজে আপত্তি জানালে আনিছ তাকে ধারালো ছুরির ভয় দেখায় এবং আতিক ও আনিছ উভয়ই তার সাথে শারীরিক নির্যাতন চালায়।
পরবর্তীতে ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে গ্রাম সালিশের মাধ্যমে আতিককে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করে বিষয়টি সমাধান করার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু আতিক ওই টাকা পরিশোধ না করে এলাকা হইতে পালিয়ে যায় এবং টাকা দিতে অসম্মতি জানায়। অপরদিকে ভিকটিমের অবস্থা সংকটপন্ন হওয়ায় রুবেল নামের আতিকের একজন প্রতিবেশী তাকে নিয়ে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। পরবর্তিতে রুবেল ভিকটিমের পক্ষ থেকে আতিকের কাছে মোবাইল ফোনে জরিমানার টাকা দাবি করলে আতিক র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পে এসে অপহরণের একটি মিথ্যা অভিযোগ করে। উক্ত অপহরণের অভিযোগটি তদন্ত শুরু করলে র‌্যাব -১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্প শিশুটির উপর গণধর্ষণের আলামত পায়। উক্ত ঘটনায় জড়িত অপর আসামি আনিছ এখনো পলাতক রয়েছে।
এ ঘটনায় আতিক ও আনিছের বিরুদ্ধে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় নারী ও শিশু দমন আইন ২০০০ সনের (সংশোধনী ২০০৩) এর ৯(৩) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেফতার আসামিকে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে এবং উক্ত ঘটনায় জড়িত অপর আসামি আনিছকে ধরার জন্য র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana