বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন

ইউক্রেনজুড়ে বিমান হামলার সতর্কসংকেত

ইউক্রেনজুড়ে বিমান হামলার সতর্কসংকেত

একুশে ডেস্ক:

ইউক্রেনে হামলা আরও জোরালো করেছে রাশিয়া। ইউক্রেনের প্রায় প্রতিটি অঞ্চলে বিমান হামলার সতর্কসংকেত বাজতে শোনা গেছে। ইউক্রেনের সংবাদমাধ্যম ইউক্রেনফর্মের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

এদিকে খারকিভ, চেহেরনিভ, সুমি ও মারিওপোলের মতো শহরগুলো ঘিরে রেখেছে রুশ বাহিনী।  তারা শহরগুলোতে ব্যাপক বোমা হামলা চালাচ্ছে।

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের উপকণ্ঠে দুপক্ষের মধ্যে ব্যাপক লড়াই চলছে।  কিয়েভে রাশিয়ার সর্বাত্মক হামলার আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে কিয়েভে হামলার প্রতিরোধের হুশিয়ারি দিয়ে রেখেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি।

রুশ সেনারা কিয়েভের চারপাশে ছড়িয়ে পড়ছেন। তারা কিয়েভ দখল করতে লড়াইয়ের জন্য এমন অবস্থান নিচ্ছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। কিয়েভ দখলের ক্ষেত্রে তারা ইউক্রেনীয় বাহিনীর তীব্র প্রতিরোধের মুখে পড়তে পারেন।

উপগ্রহ থেকে তোলা ছবিতে রাজধানী কিয়েভ থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার উত্তরের শহর মশচুনের বাড়িঘর গোলার আগুনে জ্বলতে দেখা গেছে।

কিয়েভ অঞ্চলের ভাসিলকিভ শহরের কাছে রাশিয়ার রকেট হামলায় ইউক্রেনের একটি বিমানঘাঁটি ধ্বংস হয়ে গেছে।  এ ছাড়া ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর গোলাবারুদ মজুত করে রাখার একটি স্থাপনায় (ডিপো) রুশ হামলা হয়েছে। শহরটির মেয়রকে উদ্ধৃত করে রুশ সংবাদ সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

টেলিগ্রাম চ্যানেলে জাতীয় জরুরি সেবা বিভাগের এক বার্তায় বলা হয়, শত্রুরা লুহানস্ক অঞ্চলকে বিচ্ছিন্ন করতে পারবে না। সব কিছু ইউক্রেনের থাকবে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম কিয়েভ ইনডিপেনডেন্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউক্রেনের প্রায় প্রতিটি অঞ্চলে বিমান হামলার সতর্কসংকেত বাজার মধ্যেই গোলাবর্ষণের এ খবর এলো।

কিয়েভ ইনডিপেনডেন্ট এক অনলাইন পোস্টে জানায়, ‘ইউক্রেনের প্রায় প্রতিটি অঞ্চলেই এখন বিমান হামলার সতর্কসংকেত শোনা যাচ্ছে।’

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা চালায় রাশিয়া।  এর পর থেকে আজ যুদ্ধের ১৮তম দিন চলছে। হামলায় ১৩০০ ইউক্রেনীয় নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন জেলেনস্কি।  আর ইউক্রেনের প্রতিরোধে ১২ সহস্রাধিক রুশ সেনা নিহত হয়েছেন বলে দাবি জেলেনস্কি সরকারের।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana