বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০২:৪৪ অপরাহ্ন

ভৈরবে মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় হামলায় নারীসহ আহত ৩

ভৈরবে মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় হামলায় নারীসহ আহত ৩

এম.এ হালিম, বার্তাসম্পাদক:

ভৈরবে কালিপুরে মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে মাদক ব্যবসায়ী গোলাপ মিয়া দল বল নিয়ে হামলা চালায় বলে অভিযোগ উঠেছে। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় তুষার (২২) আনোয়ারা বেগমসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় আল-আমিন বাদী হয়ে গোলাপ মিয়াকে প্রধান অভিযুক্ত করে ভৈরব থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
এলাকাবাসীরা জানায়, কালিপুর গ্রামের ইসমাইল মিয়ার পুত্র গোলাপ মিয়া এলাকায় মাদক ব্যবসা করে উঠতি বয়সের তরুণ ও যুবকদের বিপথগামী করছে। শুধু তাই নয় মাদক ব্যবসা প্রসার করতে তরুন ও যুবকদের বিপথে ঠেলে দিচ্ছে। মাদক ব্যবসায়ী গোলাপ এক সময় রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতো। তখন অভাব ছিল তাদের নিত্য দিনের সঙ্গী। হঠাৎ গত কয়েক বছর ধরে পেশা বদল করে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পরে। মাদক ব্যবসা করে রাতারাতি জমি কিনে বাড়িতে ভবন নির্মাণ করছে। এছাড়া লাখ লাখ টাকার মালিক বলে জানায় তারা। তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খোললে তাদের মাদক দিয়ে পুলিশে ধরিয়ে দেয়ার ভয় দেখায়। তাই তার ভয়ে কেউ মুখ খোলার সাহস পায়না। মামলার বাদী ভোক্তভূগি আল আমিন জানান, মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় গত ২৩ ফেব্রুয়ারী রাতে গোলাপ তার দলবল সাথে নিয়ে আমার বাড়িতে এসে হামলা চালিয়ে মারধোর করে তুষার ও আনোয়ারাকে আহত করে। এছাড়া হত্যার হুমকি দিচ্ছে এবং উল্টো আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই।
স্থানীয় গ্রামবাসী ইকবাল মিয়া, আইনুল হক বাতেনসহ অনেকেই গোলাপ মিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, সে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। এলাকায় দাপটের সাথে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় হামলা চালিয়ে মারপিট করে তুষার ও আনোয়ারাসহ কয়েকজনকে আহত করেছে।
এ বিষয়ে গোলাপ মিয়া অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন তিনি মাদক ব্যবসা করেননি। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবী করেন।
এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক মোস্তাক আহমেদ বলেন গোলাপের বিরুদ্ধে একটি মামলা রুজু হয়েছে। তদন্ত করছি। তদন্ত শেষ হলে সত্যতা পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana