মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৯:০৯ অপরাহ্ন

কিশোরগঞ্জে ইট দিয়ে আঘাত করে স্ত্রীকে হত্যা ॥ স্বামী পলাতক

কিশোরগঞ্জে ইট দিয়ে আঘাত করে স্ত্রীকে হত্যা ॥ স্বামী পলাতক

হত্যাকারী পাষন্ড স্বামী ইমরান

মো: ইমরান হোসেন, প্রধান বার্তাসম্পাদক:

কিশোরগঞ্জ জেলা সদরে মোছা: রাজিয়া আক্তার (২৯) নামের এক নারীকে ইট ও লোহার রড দিয়ে মাথায় গুরুতর আঘাত করায় হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী মো: ইমরান (৩৫) এর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মেয়ের ভাই মো: রাজু মিয়া (২০) মোছা: রাজিয়া আক্তারের স্বামী মো: ইমরান কে প্রধান আসামী করে গত ২১ ফেব্রুয়ারি আরো ৩জনের বিরুদ্ধে কিশোরগঞ্জ মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে; মামলা নং-৩১/৬৮। গত ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২২ইং তারিখে পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের হয়বতনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মোছা: রাজিয়া আক্তার জেলা সদরের মারিয়া ইউনিয়নের তালতলা গ্রামের মো: আবু কালামের মেয়ে। ঘাতক মো: ইমরান পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের হয়বতনগর এলাকার জালাল উদ্দিনের ছেলে। মামলার অন্য আসামীরা হলো, হয়বতনগর এলাকার মো: জালালের ছেলে মো: আঙ্গুর (২৮), খালেক মিয়ার ছেলে নুর ইসলাম ওরফে হিংকু মিয়া (৫৫) ও খালেক মিয়ার মেয়ে মোশন আক্তার(৫০)। মামলার স্বাক্ষীরা হলো; শুক্কুর মিয়ার ছেলে পাভেল (২০), রাজীব (২০) পিতা: অজ্ঞাত ও রুবেল (২১) পিতা: অজ্ঞাত।
মামলার বিবরণে জানাযায়, বিগত ৮-৯ বছর পূর্বে মোছা: রাজিয়া আক্তারের সঙ্গে ঘাতক মো: ইমরানের আনুষ্ঠানিক ভাবে বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকেই রাজিয়াকে যৌতুকের টাকার জন্য দিনের পর দিন মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করে আসছে তার পাষন্ড স্বামী ইমরান। বিয়টি তার মা-বাবাকে জানালে তারা মিমাংসার চেষ্টা করে আসছে। এমতাবস্থায় তার দেবর ও ননদের কু-পরামর্শে গত ১৮/০২/২০২২ ইং তারিখে রাত ৯টা টার দিকে ইট দিয়ে মাথায় স্বজোরে আঘাত করে ও লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে পিটিয়ে তাকে রক্তাক্ত জখম করে। পরে আশ-পাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করে। কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজিয়ার শারিরীক অবস্থার অবনতি দেখলে ২০/০২/২০২২ ইং তারিখে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। সেখানে ভর্তির কিছুক্ষন পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।
এ বিষয় মেয়ের ভাই মো: রাজু মিয়া বলেন, বিষয়টি লোকমুখে জানতে পেরে আমি আমার বোনের বাড়িতে যাই। এক পর্যায় দেখি আমার বোনকে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় মাটিতে লুটে পড়ে আছে। আমি এর প্রতিবাদ করলে আমাকে খুন জখম করার হুমকি দেয়।
এ বিষয় কিশোরগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: দাউদ জানান, এ ব্যাপারে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রধান আসামী সহ অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছে। তাদেরকে গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত আছে।

 

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana