বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৫:৩৮ পূর্বাহ্ন

কিশোরগঞ্জ জেলা সদরে সরকারি কাজীর অফিসে হামলা

কিশোরগঞ্জ জেলা সদরে সরকারি কাজীর অফিসে হামলা

আমিনুল হক সাদী, চীফ রিপোর্টার:

কিশোরগঞ্জ জেলা সদরের ৯নং চৌদ্দশত ইউনিয়নের ইউ.পি কমপ্লেক্সের ২য় তলায় সরকারী কাজী অফিসে হামলা চালিয়ে চেয়ার টেবিল ভাংচুর ও কাজীকে মারধোর করে অফিসের সরকারি তালাক রেজিস্ট্রার বহি’সহ নগদ টাকা হাতিয়ে নিয়ে যায় হামলাকারীরা। পরে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ীতে আসে কাজী।

ঘঠনাটি ঘটেছে গত ৭ ফেব্রুয়ারি বেলা অনুমান ১২ টায়। এব্যাপারে কিশোরগঞ্জ সদর থানায় কাজী মোহাম্মাদ মিনহাজ উদ্দিন বাদী হয়ে চৌদ্দশত উত্তর পাড়ার মোঃ সোহরাব উদ্দীনের পুত্র মোঃ বিল্লাল মিয়া (৩০) ও জিনাড়াই বাকলারচরের মোঃ আঃ ছাত্তার (ছেতু) মিয়ার পুত্র মোঃ সাইফুল ইসলাম(২৭) কে বিবাদী করে একটি অভিযোগপত্র দাখিল করে।
অভিযোগপত্রটি দাখিলের পর ঘঠনাস্থলে তদন্তে যায় থানা পুলিশ। এবং অভিযোগপত্রটি মামলা আকারে গৃহীত হয়, যাহার মামলা নাম্বার ৯৯১(৩)/১ ১০/০২/২২।
মামলার বিবরণ এলাকাবাসীর বক্তব্য ও ভিডিও ক্লীপ্টে মাধ্যমে জানাযায়, ঘঠনার ১০/১২ দিন পুর্বে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যাক্তিদের সামাজিক সিদ্বান্তে দেন মোহরের এক লক্ষ টাকা পরিশোধ করার শর্তে খোলা তালাকের খসড়া নামায় স্বামী জাকারিয়া ও স্ত্রী রহিমা খাতুনের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদের খসড়া হয় ।
এতে উক্ত টাকা ছেলের বাড়ী হতে আদায় করে তৃতীয় পক্ষ হয়ে হাতিয়ে নেয় আসামীদ্বয়। সুযোগ খুজে তালাক রেজিস্ট্রি বহির। ঘঠনার দিন আসামীদ্বয় আরো ৩/৪ জন সঙ্গী নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের দোতলায় কাজী অফিসে অধিকার প্রবেশ করে জোরপূর্বক সরকারি তালাক রেজিস্ট্রার বহি নিতে চাইলে বাদী কাজী মিনহাজ উদ্দিন বাধা দিলে কর্মরত অবস্থায় কাজীর উপর হামলা চালিয়ে পরিধেয় কাপড় ছোপড় ছিরেফেলে ও ব্লে­জারে থাকা নগদ টাকা’সহ ০১/২০২২ নং সরকারি তালাক রেজিস্ট্রি বহি নিয়ে যায়।
এলাকাবাসী আরো জানান, হামলাকারীরা এলাকায় চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ প্রকৃতির লোক এদের নামে থানায় ও কোর্টে একাধীক মামলা ও জেলহাজতে থাকার রেকর্ড রয়েছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana