রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১২:০০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহীতে ১৩১৬ কোটি টাকার প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কুলিয়ারচরে স্থানীয় সাংসদ ও বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে সংবর্ধনা কিশোরগঞ্জে আল ইমদাদী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কেরাত, হামদ-নাত মাসনুন দোয়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত কিশোরগঞ্জে তামাক নিয়ন্ত্রণ জেলা টাস্কফোর্স কমিটির এৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত কুলিয়ারচরে উপজেলা চেয়ারম্যানের বক্তব্যকে ঘিরে উত্তোপ্ত পরিস্থিতি ক্ষমার মাধ্যমে শান্ত ভৈরবে আবাসিক এলাকায় সুইপার কলোনী প্রকল্প বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু হবে, প্রস্তুতি নিচ্ছি: প্রধানমন্ত্রী কুলিয়ারচরে আক্তার উদ্দিন শাহ্ কলন্দর গউস পাক (রঃ) এঁর মাজার পরিচালনা কমিটি গঠন কুলিয়ারচরে আলহাজ্ব ছিদ্দিক মিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল কিশোরগঞ্জে টি-১০ ক্রিকেট প্রতিযোগিতা সমাপ্ত
কিশোরগঞ্জে বাংলা ইশারা ভাষা দিবসে ‘বাংলা ইশারা ভাষা ইনস্টিটিউট’ স্থাপনের দাবী

কিশোরগঞ্জে বাংলা ইশারা ভাষা দিবসে ‘বাংলা ইশারা ভাষা ইনস্টিটিউট’ স্থাপনের দাবী

স্টাফ রিপোর্টার:

কিশোরগঞ্জে বাংলা ইশারা ভাষা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে সোমবার জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উদ্যোগে শিশু পরিবার বালিকাতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ নুরুজ্জামান। জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক মোঃ কামরুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে দিসটির গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনা করেন, বিআরডিবির সাবেক পরিচালক বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ নিজাম উদ্দিন, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোঃ শহীদুল্লাহ, রেজিষ্ট্রেশন অফিসার হারুন অর রশিদ, সদর উপজেলার সমাজসেবা অফিসার হুমায়ন আহমেদ কবীর ভূঞা, সমাজসেবা অফিসার সালমা খানম, প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা মিঠুন চক্রবর্তী, কনাসালটেন্ট দ্বীন ইসলাম, প্রবেশন অফিসার মো: মহসিন, এড মায়া ভৌমিক, সাবেক সমাজ কর্মী কামরুজ্জামান কামরুল, নূর অটিজম প্রতিবন্ধী স্কুলের শিক্ষক মোঃ জোবায়ের হোসেন প্রমুখ।
সভায় বক্তারা ইশারাভাষী জনগোষ্ঠীর অধিকার আদায়ে ‘বাংলা ইশারা ভাষা ইনস্টিটিউট’ স্থাপনের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান। এ সময় সমাজসেবা অধিদপ্তর, প্রতিবন্ধী বিষয়ক কার্যালয়ের কর্মকর্তাগণ, বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার প্রতিনিধিগণ, জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা মহিনন্দ ইতিহাস ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদ ও যুব উন্নয়ন পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা মোঃ আমিনুল হক সাদী বলেন, শ্রবণ ও বাক প্রতিবন্ধী মানুষদের স্বতন্ত্র এবং বৈচিত্র্যপূর্ণ জীবন অভিজ্ঞতায় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বাংলা ইশারা ভাষা। প্রতিবন্ধিতার কারণে এই ভাষা ছাড়া অন্য কোন ভাষায় তাদের যোগাযোগের কোন সুযোগ নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৯ সালে পহেলা ফেব্রুয়ারি অমর একুশে গ্রন্থমেলার উদ্বোধনকালে বাংলা ইশারা ভাষাকে অন্যতম ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি ঘোষণা দেন। এরপর থেকেই প্রতিবছর ৭ ফেব্রুয়ারি দিবসটি পালিত হয়ে আসছে। সময়ের পরিক্রমায় বাংলা ইশারা ভাষা ইনস্টিটিউট স্থাপন আজ সময়ের দাবি।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana