বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৩৯ অপরাহ্ন

বিপিএল : উইকেটের কারণেই ছন্নছাড়া ব্যাটিং!

বিপিএল : উইকেটের কারণেই ছন্নছাড়া ব্যাটিং!

একুশে ডেস্ক:
জয় দিয়ে বিপিএলে এবারের আসরে নিজেদের অভিযান শুরু করেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। কিন্তু প্রতিপক্ষ সিলেট সানরাইজার্সের ৯৫ রান তাড়া করে যেভাবে হারতে হারতে ২ উইকেটে জিতেছে তারা, তা অবাক করেছে অনেককেই। স্থানীয় এবং বিদেশি তারকাদের নিয়ে দুর্দান্ত এক দল কুমিল্লা; কিন্তু মাঠের পারফরম্যান্সে দলটি নিজেদের শক্তিমত্তার প্রমাণ রাখতে পারেনি। ব্যাট হাতে সামর্থ্যরে প্রমাণ রাখতে পারেনি সিলেটের ব্যাটাররাও। এর দায় মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের ২২ গজি উইকেটের কাঁধেই চাপিয়ে দিল দুই দল।
ম্যাচ হেরে নিজেদের বাজে ব্যাটিংয়ের দায় উইকেটের ওপরই চাপালেন সিলেটের ওপেনার এনামুল হক বিজয়, ‘আসলে উইকেটটা টি-টোয়েন্টির মতো আমাদের মনে হয়নি। ব্যাটিং করা বেশ কঠিন ছিল ব্যাটারদের জন্য। উইকেট ভেজা ছিল, টার্ন ছিল। যে কারণে ব্যাটাররা স্বাচ্ছন্দ্যে খেলতে পারেনি। দুইটা দল একইভাবে খেলেছে। ব্যক্তিগতভাবে আমার কাছে কঠিনই মনে হয়েছে। সবার কাছেই আসলে কঠিন মনে হয়েছে। টি-টোয়েন্টিতে একটু কঠিন এমন উইকেট থাকলে রান বের করা। সব মিলে এ কারণেই আমার মনে হয় রানটা হয়নি।’ সঙ্গে যোগ করলেন, ‘উইকেট তো আমরা সবাই দেখেছি, প্রত্যাশা অনুযায়ী ওইরকম পাইনি। টসটাও খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আমরা যদি টসে জিততাম, আমরাও ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিতাম। আপনারা সবাই দেখেছেন কী পরিমাণ টার্ন হচ্ছিল। বল কাট করছিল। তাই একটু কঠিন ছিল ব্যাটারদের জন্য। একটু না, অনেকখানিই কঠিন ছিল।’
এনামুলের সুরেই সুর মিলিয়েছেন বিজয় দল কুমিল্লার অধিনায়ক ইমরুল কায়েস, ‘উইকেট প্রথম হাফে কিছুটা কঠিন ছিল। আমাদের বোলাররা উইকেটের সঙ্গে তাল মিলিয়ে যথেষ্ট ভালো, পরিকল্পনামাফিক বোলিং করেছে। কিন্তু লো স্কোরিং ম্যাচে সবসময়ই একটু সমস্যা হয় রান তাড়ার ক্ষেত্রে। পরিকল্পনায় একটু সমস্যা হয়। একটা উইকেট পড়ে গেলে আরেকজন বোলার এসে চেষ্টা করে কিছু বল ডট দেওয়ার। তখন কিন্তু চাপ পড়ে যায়।’ ইমরুল আরও বললেন, ‘টার্নিং উইকেটে চাইলেও সিঙ্গেলস বের করা যায় না। লো ট্র্যাকে আপনি চাইলেও আপনার পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারবেন না। যেটা হয়, অনেক দেখেশুনে ব্যাট করা লাগে। বেশি দেখেশুনে খেলতে গিয়ে হয়তো ব্যাটসম্যান আউট হয়ে যায়, তখন একটা চাপ চলে আসে।’
এটা ঠিক, মিরপুরের উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য অতটা সহজ নয়। তবে চাইলে এই উইকেটেও যে রান করা যায়, দিনের দ্বিতীয় ম্যাচই তার প্রমাণ। সে কারণেই ব্যাটারদের কাঁধেও কিছু দায় চাপালেন ইমরুল, ‘লো স্কোরিং ম্যাচ তাড়াতাড়ি শেষ করে দিতে হয়, নাহলে এমন অবস্থা আসলে দলের জন্য কঠিন হয়ে যায়। যেমনটা বললামÑ আমরা ভালো ব্যাটিং করতে পারিনি।’ এনামুলও ব্যাটারদের ব্যর্থতার কথা শিকার করে নিলেন, ‘প্রথমত রানটা একটু কম হয়ে গেছে। উইকেট অনুযায়ী আমরা ব্যাটাররা একটু হলেও তাড়াহুড়ো করেছি। আমরা যদি একটু সময় নিতে পারতাম, আর কিছু রান করতে পারতাম… আর ২০টা রান বেশি হলেও খেলাটা প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হতে পারত।’

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana