মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন

যৌন নিপীড়ন : খেতাব হারালেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু

যৌন নিপীড়ন : খেতাব হারালেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু

একুডে ডেস্ক:
যুক্তরাষ্ট্রে যৌন নিপীড়নের মামলায় বিচারের মুখে পড়া ব্রিটিশ রানীর ছেলে প্রিন্স অ্যান্ড্রু তার সামরিক ও রাজকীয় খেতাব হারিয়েছেন। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বাকিংহাম প্রাসাদ জানিয়েছে, ‘রানীর অনুমোদন ও সম্মতিতে ডিউক অব ইয়র্কের সামরিক সংযুক্তি ও রাজকীয় সম্মান ফেরত নেওয়া হয়েছে।’ বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ডিউক অব ইয়র্ক অ্যান্ড্রুকে (৬১) এখন থেকে আর আনুষ্ঠানিক কেতায় ‘হিজ রয়্যাল হাইনেস’ বলা হবে না। যৌন হয়রানির মামলায় যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত প্রিন্স অ্যান্ড্রুর বিরুদ্ধে বিচার প্রক্রিয়া চালিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত দেওয়ার পর এই পদক্ষেপ নেওয়া হলো।
নিউইয়র্কে অ্যান্ড্রুর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগটি আনেন ভার্জিনিয়া জোফ্রে নামের এক নারী। ওই অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছেন অ্যান্ড্রু। তার ঘনিষ্ঠ একটি সূত্রের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, অভিযোগ থেকে তিনি নিজেকে রক্ষা করার চেষ্টা চালিয়ে যাবেন। ওই সূত্রের যুক্তি, বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের আদালত ওই অভিযোগের ভিত্তিতে বিচার প্রক্রিয়া চালিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত দিয়েছে মাত্র, সেটি বাদীর অভিযোগের সারবত্তা নিয়ে কোনো রায় নয়।
প্রিন্স অ্যান্ড্রুর বিরুদ্ধে করা মামলায় ভার্জিনিয়া জোফ্রে দাবি করেছেন, ২০০১ সালে তাকে যৌনকর্মে বাধ্য করেছিলেন ডিউক অব ইয়র্ক। বিবৃতিতে বাকিংহাম প্রাসাদ জানিয়েছে, ডিউক অব ইয়র্ক কোনো ধরনের রাজকীয় দায়িত্বে থাকতে পারবেন না এবং এই মামলা তাকে একজন সাধারণ নাগরিকের মতোই লড়তে হবে।
অ্যান্ড্রু রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ ও প্রিন্স ফিলিপের তৃতীয় সন্তান এবং দুই ছেলের মধ্যে কনিষ্ঠ। ব্রিটিশ রাজমুকুটের উত্তরাধিকারীদের তালিকার নয় নম্বরে তার অবস্থান। বিবিসি লিখেছে, প্রিন্স অ্যান্ড্রু যেসব রাজকীয় দায়িত্বের অধিকারী ছিলেন, সেসব রানীর অধীনে ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে এবং এই আদেশ তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর করা হয়েছে। সেসব দায়িত্ব রাজপরিবারের অন্য সদস্যদের মধ্যে বণ্টন করে দেওয়া হবে।
প্রিন্সেস ডায়ানার ছেলে হ্যারি ও তার স্ত্রী মেগানের মতোই প্রিন্স অ্যান্ড্রুর নামের আগে ‘হিজ রয়্যাল হাইনেস’ ব্যবহার করতে পারবেন, তবে আগের মতো আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি বহন করবে না বলে জানিয়েছে রাজপ্রাসাদ।
যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বিবিসিকে বলেছেন, ডিউকের সামরিক খেতাব রানীর কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার বিষয়ে তাদের কোনো মন্তব্য নেই। এটা রাজপ্রাসাদের নিজস্ব বিষয়। বৃহস্পতিবার রাজতন্ত্রবিরোধী গোষ্ঠী ‘রিপাবলিক’ একটি চিঠি প্রকাশ করে। রাজকীয় নৌ, বিমান ও সেনাবাহিনীর ১৫০ জন সাবেক সৈনিক ওই চিঠিতে প্রিন্স অ্যান্ড্রুর আটটি সামরিক খেতাব ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য রানীর কাছে আহ্বান জানান।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana