মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৮:১০ অপরাহ্ন

যৌন নির্যাতনের ভিডিও ধারণ, স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার

যৌন নির্যাতনের ভিডিও ধারণ, স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার

দর্পন ঘোষ কটিয়াদী কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে এক স্কুলছাত্রীকে (১৪) স্কুল প্রাঙ্গণ থেকে ধরে নিয়ে যৌন নির্যাতন এবং ভিডিও চিত্র ধারণের পর লোকলজ্জার ভয়ে ওই স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

রোববারে নন্দীপুর গ্রামের বকুল মিয়ার ছেলে মো. রফিকুল ইসলাম ইমনকে (২০) নিজ গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে কটিয়াদী মডেল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হলে পুলিশ তাকে আদালতে প্রেরণ করে।

কটিয়াদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস. এম শাহাদাত হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, র‌্যাব মামলার ৩নং আসামি ইমনকে আটক করে আমাদের হাতে হস্তান্তর করে। পরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়। ঘটনার বিষয়ে অধিকতর তদন্তের জন্য ইমনকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। কটিয়াদী মডেল থানায় দায়ের করা মামলা সূত্রে জানা গেছে, ওই ছাত্রী এবার বনগ্রাম আনন্দ কিশোর স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে অষ্টম শ্রেণি পাস করেছে। নবম শ্রেণিতে ভর্তির ফরম আনতে গত  ২৫ ডিসেম্বর শনিবার দুপুর ১২টার দিকে স্কুলে যায় সে। এ সময় স্কুল প্রাঙ্গণ থেকে তাকে ধরে নিয়ে যায় বনগ্রাম গ্রামের মলাই মিয়ার ছেলে আকাশ মিয়া (২৫), ছিদ্দু মিয়ার ছেলে আরমান মিয়া (১৯) ও পার্শ্ববর্তী নন্দীপুর গ্রামের বকুল মিয়ার ছেলে ইমন মিয়া (২০)। তারা ওই স্কুলছাত্রীকে স্কুলের সীমানা প্রাচীরের আড়ালে নিয়ে যায়। সেখানে একে একে তিনজন তাকে যৌন নির্যাতন করে এবং নির্যাতনের সময় মোবাইলে ভিডিও চিত্র ধারণ করে। ঘটনাস্থলে ওই স্কুলছাত্রী চিৎকার করে একপর্যায়ে তিন যুবকের হাত থেকে ছাড়া পেয়ে স্কুলের শিক্ষক, স্থানীয় চেয়ারম্যান, বাজারের লোকজন এবং এলাকাবাসীকে এ ঘটনা জানিয়ে বিচায় পায়নি। এমন পরিস্থিতিতে মোবাইল ফোনে মায়ের কাছে যৌন নির্যাতন ও ভিডিও চিত্র ধারণের কথা জানায় সে। তার মা এসে স্কুল থেকে তাকে বাড়িতে নিয়ে যান। পরে দুপুর ২টার দিকে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় ওই স্কুলছাত্রী। পরে গত  ২৬ ডিসেম্বর (রোববার) ওই এলাকায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন থাকায় ঘটনাটি কেউ জানতে পারেনি। নির্বাচনের পর সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এলাকাবাসী ওই স্কুলছাত্রী হত্যার বিচার ও যৌন নির্যাতনকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষোভ করে। এ ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রীর মা তিন যুবক আকাশ, আরমান ও ইমনকে আসামি করে কটিয়াদী মডেল থানায় মামলা করেছেন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana