বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০২:৪৭ অপরাহ্ন

ভৈরবে গৃহবধূকে গণ ধর্ষণ ॥ গ্রেফতার-১

ভৈরবে গৃহবধূকে গণ ধর্ষণ ॥ গ্রেফতার-১

এম.এ হালিম, বার্তা সম্পাদক: 

ভৈরবে গৃহবধূকে জোর পূর্বক গণ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে । এ ঘটনায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে । মামলা দায়েরের পর পুলিশ মামলার আসামি আলমগীর নামে ১ জনকে গ্রেফতার করেছে । ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ওয়ানষ্টপ ক্রাইসিস সাপোর্ট সেন্টারে পাঠিয়েছে পুলিশ । পুলিশ জানিয়েছে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়েরের পর প্রধান আসামি আলমগীরকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে এবং মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

ভৈরবের শ্রী-নগর গ্রামের বাদাম বিক্রেতা ফারুক মিয়ার স্ত্রী প্রতিদিনের ন্যায় রাতের খাবার খেয়ে সন্তানদের নিয়ে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। স্বামী ঢাকায় বাদাম বিক্রি করে ওখানেই থাকেন । বাড়িতে স্বামী না থাকায় বুধবার গভীর রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিলে বাইরে বেরোলে এ সুযোগে প্রতিবেশী মানিক ও আলমগীর তার ঘরে ঢুকে জোর পূর্বক তাকে ২ জনে মিলে গণধর্ষণ করে । এ সময় তার ডাক চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে লম্পটরা পালিয়ে যায় ।পরদিন সকালে ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে বিষয়টি

সামাজিকভাবে মিমাংসার জন্য চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় স্থানীয় মাতব্বররা ।পরে শনিবার রাতে ভৈরব থানায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে মানিক ও আলমগীরসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে ভৈরব থানায় ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করে ।ধর্ষিতার স্বামী ফারুক মিয়া জানান, তার স্ত্রী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিলে রাতে বাইরে বের হলে ধর্ষণশারীরা তার ঘরে ঢুকে জোরপূর্বক তার স্ত্রীকে আলমগীর ও মানিক ধর্ষণ করে । এ সময় তার স্ত্রী ডাকচিৎকার করলে প্রতিবেশীরা ছুটে এলে ধর্ষণশারীরা পালিয়ে যায় ।তিনি এর সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন ।
তবে এলাকাবাসিরা স্বীকার করে যে বিষয়টি তারা স্থানীয়ভাবে মিমাংসার মাধ্যমে সুষ্ঠু সমাধান করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। ।তবে অভিযুক্ত মানিকের বাড়িতে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি ।

এ বিষয়ে গ্রেফতারকৃত আলমগীর তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি এ ঘটনার সাথে জড়িত নন ।
এ বিষয়ে শ্রী-নগর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মানিক মিয়া জানান, বুধবার রাতে ফারুক মিয়ার স্ত্রীর ঘরে থেকে মানিক ও আলমগীর ২ জনকে প্রতিবেশীরা বের হতে দেখেছে । বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মিমাংসার চেষ্টা করেছিলাম । কিন্ত সমাধান করা যায়নি । তাছাড়া তাদের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ ও চলছে দীর্ঘদিন ধরে ।

এ বিষয়ে ভৈরব থানার ওসি মোঃ গোলাম মোস্তফা জানান গণ ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে রাতে থানায় একটি মামলা রুজু করেছে। আমরা এজাহার নামীয় আসামি আলমগীরকে রাতেই গেস্খফতার করেছি । মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে । এছাড়া ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ওয়ান ষ্টপ সাপের্ট সেন্টারে পাঠানো হয়েছে ।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana