শুক্রবার, ০১ Jul ২০২২, ১০:৩০ পূর্বাহ্ন

কিউই চ্যালেঞ্জে বছর শুরু টাইগারদের

কিউই চ্যালেঞ্জে বছর শুরু টাইগারদের

একুশে ডেস্ক:
বাংলাদেশ ওয়ানডে ক্রিকেটে যতটা সচল,  টেস্ট আর টি-টোয়েন্টিতে ঠিক ততটাই অচল। বিশেষ করে লংগার ভার্সন ক্রিকেটে টাইগারদের দুরবস্থা ওঠে চরমে। আর যদি খেলা হয় উপমহাদেশের বাইরে, তখন সেই দুরবস্থা হয়ে ওঠে অবর্ণনীয়। আবার প্রতিপক্ষ যদি হয় স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড, তখন হাল ভেঙে দিশেহারা নাবিকের দশা হয় টাইগারদের। এ অবস্থায় স্বাগতিক কিউই চ্যালেঞ্জের মধ্য দিয়েই নতুন বছর শুরু করছে বাংলাদেশ। শনিবার মাউন্ট মঙ্গানুইয়ের মাঠে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের  বিপক্ষে  দুই টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলবেন  মুমিনুল হকরা। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায়।
নিউজিল্যান্ড সফরে টাইগারদের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ কন্ডিশন। ঐতিহ্যগতভাবেই বাংলাদেশের বোলিং শক্তি স্পিন। ব্যাটাররাও স্পিনের বিপক্ষেই বেশি স্বচ্ছন্দ। সমস্যাটা হয় দুদিক থেকেই। একদিকে পেস আশীর্বাদসিক্ত উইকেটের সুবিধা নিতে পারেন না আমাদের পেসাররা। আবার বিপক্ষ শিবিরের পেসারদের সামলাতে হিমশিম খেতে হয় আমাদের ব্যাটারদের। নিউজিল্যান্ড সফরে এই সঙ্কট ওঠে চরমে।
বাংলাদেশ দলের এ সমস্যা খুব ভালোভাবেই জানে কিউইরা। আর তাই বাংলাদেশের বিপক্ষে এজাজ প্যাটেলের মতো ভারত-কাঁপানো স্পিনারকেও বাইরে রেখেই প্রথম টেস্টের দল ঘোষণা করেছে স্বাগতিকরা। বলা বাহুল্য, সম্প্রতি ভারত সফরে মুম্বাই টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১০ উইকেটের সবগুলোই নিজের ঝুলিতে ভরেন এই কিউই স্পিনার।
গতির জবাব গতি দিয়ে দেওয়ার সামর্থ্য এখনও টাইগাররা অর্জন করতে পারেনি। এদিকে এবারের সফরে প্রস্তুতির ঘাটতি নিয়েই টেস্ট খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। গত ৮ ডিসেম্বর নিউজিল্যান্ড পৌঁছালেও একটি মাত্র দুদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে মুমিনুল হকরা। দীর্ঘ কোয়ারেন্টাইন কাটিয়ে অল্প কয়েকদিনের অনুশীলন করেও একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচটিতে ভালোই মুন্সিয়ানা দেখিয়েছে টাইগাররা। বল হাতে স্বাগতিকদের ওপর ভালোই ছড়ি ঘুরিয়েছেন সফরকারী দলের দুই পেসার তাসকিন আহমেদ ও আবু জায়েদ রাহি। টেস্ট ম্যাচে রাহি-তানকিনরা কতটা জ্বলে উঠতে পারেন তার ওপর নির্ভর করছে অনেক কিছুই।
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে সেই অর্থে তেমন কোনো অর্জন নেই টাইগারদের। দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে ১৫ টেস্টের ১২টিতে হেরেছে টাইগাররা। ড্র বাকি তিনটিতে। আর নিউজিল্যান্ডের মাটিতে হার হয়েছে সবগুলোই। একবারই কিউই সফরে  লড়াইয়ের একটা সম্ভাবনা তৈরি করেছিল টাইগাররা।  ২০১৭ সালের সফরে ওয়েলিংটন টেস্টে প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেট হারিয়ে ৫৯৫ রান সংগ্রহ করেছিল বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসানের ব্যাট থেকে এসেছিল ২১৭ রান। আর মুশফিকুর রহিম খেলেছিলেন ১৫৯ রানের একটা ঝকঝকে ইনিংস।
দুই উইকেট হাতে রেখে ইনিংস ঘোষণা করেছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিক। এর চড়া মাশুল দিতে হয়েছিল টাইগারদের। দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৬০ রান তুলতেই দম ফুরিয়ে যায় বাংলাদেশের। পঞ্চম ও শেষ দিনের শেষ বিকালে একেবারে শেষ সময়ে হেরে যায় সফরকারীরা। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব এ সফরে নেই। স্বেচ্ছায় এই সিরিজ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন সাকিব। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার না থাকার চ্যালেঞ্জও থাকছে বাংলাদেশের। তবে আপাতত ভালো সংবাদ যে, এই সিরিজে নেই রান মেশিনখ্যাত কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2021
Design By Rana